রহস্যময় গ্রীক মাইথোলজির জানা অজানা তথ্য- দেখুন বিস্তারিত

সুদূর প্রাচীনকাল থেকেই ধর্ম, বিজ্ঞান, সাহিত্য ও সভ্যতার ইতিহাস, সমস্ত কিছুই একে অপরের সঙ্গে ওতপ্রতভাবে জড়িত; প্রতিটি জাতির রয়েছে আলাদা আলাদা ইতিহাস, আলাদা আলাদা সাহিত্য; রয়েছে আলাদা ধর্ম উপাখ্যান;

তেমনি প্রাচীনকাল থেকেই গ্রীস ছিলো সভ্যতা ও সংস্কৃতির এক অমূল্য ভান্ডার; প্রাচীন গ্রিস উপদ্বীপ ছিলো এই সভ্যতার মূল কেন্দ্র; যাকে হেলেনিক সভ্যতাও বলা হয়; অর্থাৎ প্রাচীন গ্রীক শহর এথেন্স থেকে শুরু হওয়া এই সভ্যতার অপর নাম হেলেনিক সভ্যতা যা খৃষ্টপূর্ব প্রায় ৩৩৭ অব্দ অব্দি টিকে ছিলো;

আজকে আমরা জানবো সেই রহস্যময় গ্রীক সভ্যতার জানা অজানা কিছু তথ্য; তবে আরও এমন টপিক চাইলে আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে যেতে পারেন; কথা দিচ্ছি নিরাশ হবে না;

আমাদের ইউটিউবঃ

Click Here

ভিডিও শুরুতে ছোট্টো করে জেনে নিন গ্রীসের ইতিহাস;
প্রাচীন গ্রীসের সূচনা, প্রাচীন গ্রীসের সূচনা ধরা হয় ৭৭৬ খ্রীস্টপূর্বাব্দে অলিম্পিক গেমস এর আয়োজনের মধ্য দিয়ে, অবশ্য অনেকে এটাকে ১০০০ খ্রীস্টপূর্বাব্দ পর্যন্ত বিস্তৃত করতে চান। প্রাচীন গ্রীক সভ্যতার পরিসমাপ্তি ধরা হয় ৪৭৬ খ্রিস্টাব্দে রোমান সাম্রাজ্যের পতনের মধ্য দিয়ে।

গ্রীক মাইথোলজি বা গ্রীক পুরাণ প্রাচীন গ্রীকপুরাণ জুড়ে আছে শুধুমাত্র প্রাচীন গ্রীসে রচিত বিভিন্ন দেবদেবী আর বীর যোদ্ধাদের উপাখ্যান; যে গল্প কাহিনীর মধ্যে আছে সে দেশের সংস্কৃতি, প্রথা, আচার আচরণ ইত্যাদির গল্প; যেমনভাবে প্রতিটি ধর্ম সাহিত্যে আছে নিজস্ব কিছু গল্প কিছু কাহিনী, কি হিরো, তেমনি গ্রীক সভ্যতাও কিছু দেব দেবী ও হিরোর উত্থান কাহিনী; যার মধ্যে জিউস, প্রিসাইডন ও অ্যাপোলোর মত দেবতা এবং হিয়েরা, অ্যাফ্রাডাইটি ও অ্যাথেনার মত দেবীর কাহিনী;

বিস্তারিত জানতে দেখুন আমাদের ভিডিওটিঃ

Leave a Comment