‘আমরা কি চা খাবোনা?’ ভাইরাল প্রশ্নকর্তা দিনমজুর মৃদুলবাবুকে সাহায্য সৌরভ গাঙুলীর

‘চা খাব না আমরা? আমরা খাব না চা?’- নরেন্দ্র মোদীর ডাকা জনতা কারফিউয়ের দিন পশ্চিমবঙ্গের বোধহয় সবচেয়ে আলোচিত ও বহুচর্চিত ‘ডায়লগ’ হয়ে উঠেছিল এই নিরীহ দুটি প্রশ্ন। জনতা কারফিউর দিন কেন চায়ের দোকানে? প্রশ্নের জবাবে উঠে এসেছিল এই প্রশ্ন দুটো। যিনি প্রশ্নকর্তাকে পালটা প্রশ্ন করেছিলেন, তাঁর নাম মৃদুল দেব। থাকেন দক্ষিণ কলকাতার শ্রী কলোনিতে। সেদিনের সেই ভিডিয়ো সামনে আসতেই মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে যায়। বিখ্যাত হয়ে যান মৃদুল বাবু। সরকারি নির্দেশকে উপেক্ষা করে কেন রাস্তায় চা খেতে, সেই প্রশ্নও উঠে আসে নেটিজেনদের মুখে। অনেকেই তাঁকে নিয়ে তৈরি করেন মিম, চলতে থাকে চটুল রসিকতাও। চারিদিকে তখন ‘চা কাকু’কে নিয়ে হৈচৈ অবস্থা।

কয়েক দিনের মধ্যেই সামনে আসে আরেকটি ভিডিয়ো। তাতে দেখা যায়, লকডাউনের এই বাজারে সংসার চালাতে মাটি কোপানোর কাজ করছেন মৃদুল দেব। চোখে-মুখে ক্লান্তি, কিন্তু অমলিন সেই সরল হাসি। তখনই স্পষ্ট হয় বিষয়টি। আলোর নিচে যেমন অন্ধকার থাকে, সোশ্যাল মিডিয়ায় এই সুখ্যাতির (নাকি কুখ্যাতি) নিচেও রয়েছে মৃদুল বাবুর হাড়মাস খাটনির জীবন। পরে আরও একটি ভিডিয়োও তাঁর ছেলে অজিত দেব বাবাকে নিয়ে আবেদন করেন, ‘আমাদের সংসার চালাতে খুব কষ্ট হয় বাবার। যদি ভালো কিছু কাজের ব্যবস্থা হয় আমার বা বাবার, আপনারা একটু দেখবেন!’

মানবিক মহারাজ এবার ভাইরাল 'চা কাকু'র পাশে

এরপর দেখা যায়, মৃদুল বাবুকে অনেকেই বাড়িতে নিয়ে যাচ্ছেন, হাতে চা দিয়ে ভিডিয়ো করে ছাড়ছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। নির্বিকার মুখে সেই চেনা হাসিটাই হাসছেন মৃদুল দেব। তাতে অবশ্য রসিকতা হচ্ছিল বটে, কিন্তু করোনার সময় প্রয়োজনীয় নির্দেশ মানা বা মৃদুল বাবুর আসল সমস্যার সমাধান-কিছুই হচ্ছিল না।

ঠিকা শ্রমিকের কাজ করা মৃদুল বাবুর ভিডিয়ো ভাইরাল হয় নেট দুনিয়ায়। দুদিন আগে মৃদুল বাবু ও তাঁর ছেলের একটি ভিডিয়ো ভাইরাল হয় সোশ্যাল নেটওয়ার্কে। তাঁর পরিবারের আর্থিক দুরবস্থার কথা জানিয়ে সকলকে পাশে থাকার আবেদন জানান ভাইরাল হওয়া সেই ‘চা কাকু’ ওরফে মৃদুল দেব। এবার সেই ‘চা কাকু’র পাশে দাঁড়ালেন সৌরভ গাঙ্গুলি। শ্রী কলোনির বাসিন্দা মৃদুল দেবের পাশেই এবার দাঁড়াল সৌরভ গাঙ্গুলি ফাউন্ডেশন।

তথ্যসূত্রঃ এই সময়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *